ডিসেম্বরে মোস্তফা সরওয়ার ফারুকীর নতুন সিনেমার শ্যুটিং ‘স্যাটারডে আফটারনুন’

বছরের অন্যতম আলোচিত সিনেমা ‘ডুব’ রিলিজ দেওয়ার ঠিক এগারো দিন আগে খ্যাতিমান পরিচালক মোস্তফা সরওয়ার ফারুকী ঘোষণা দেন তাঁর নতুন চলচ্চিত্র ‘স্যাটারডে আফটারনুন’ (Saturday Afternoon) -এর। বুসান চলচ্চিত্র উৎসবে বর্তমানে চলছে ‘ডুব’। আর সেখানেই বিনোদন পত্রিকা ‘ভ্যারাইটি’র প্রতিবেদনে জানানো হয় মোস্তফা সরওয়ার ফারুকীর এ নতুন চলচ্চিত্রের কথা।

‘একটি নির্দিষ্ট দিনে কিছু ভিন্ন ভিন্ন মানুষের জীবনের পরস্পর সাংঘর্ষিক কোন ঘটনা নিয়ে থ্রিলার ঘরানার চলচ্চিত্র’- সংক্ষেপে চলচ্চিত্রটির কাহিনী সম্পর্কে এতটুকুই জানানো হয়েছে। বাংলা ও ইংরেজী দুই ভাষায় নির্মিত হবে সিনেমাটি। ইতোমধ্যে প্রধান দু’টি চরিত্রে ‘নুসরাত ইমরোজ তিশা’ এবং ফিলিস্তিনি অভিনেতা ‘ইয়াদ হুরানি’ অভিনয় করবেন বলে নিশ্চিত করা হয়েছে। উল্লেখ্য, অস্কার মনোনয়ন পাওয়া জনপ্রিয় ফিলিস্তিনি সিনেমা ওমর (২০১৩) এ তারেক চরিত্রে অভিনয় করেন ইয়াদ হুরানি। এছাড়াও বার্লিন উৎসবে ‘হারমনি লেসনস’ চলচ্চিত্রে সিনেমাটোগ্রাফির জন্য গোল্ডেন বিয়ার জেতা তরুণ কাজাখিস্তানি সিনেমাটোগ্রাফার ‘আজিজ জাম্বাকিয়েভ’ এই চলচ্চিত্রের সিনেমাটোগ্রাফারের দায়িত্ব পালন করবেন বলে নিশ্চিত করেছেন পরিচালক নিজেই।

Saturday-Afternoon-11
বার্লিন সিলভার বিয়ার হাতে সিনেমাটোগ্রাফার আজিজ জাম্বাকিয়েভ

প্রায় পাঁচ লাখ ডলার বাজেটের ‘স্যাটারডে আফটারনুন’ ছবিটির শ্যুটিং শুরু হবে চলতি বছরের ডিসেম্বর মাসে। বাংলাদেশের জাজ মাল্টিমিডিয়ার প্রযোজক আবদুল আজিজ এবং প্রযোজনা সংস্থা ছবিয়ালের পাশাপাশি ভারতের শ্যাম সুন্দর দে এবং জার্মান প্রযোজনা সংস্থা ‘ট্যানডেম প্রোডাকশন’র প্রযোজক ‘আনা কাচকো’র যৌথ প্রযোজনায় নির্মিত হবে এই ছায়াছবি।

Saturday-Afternoon-111
(বাঁ থেকে) প্রযোজক মোস্তফা সরওয়ার ফারুকী, আনা কাচকো, আবদুল আজিজ ও শ্যাম সুন্দর দে

ভ্যারাইটি আরো জানায়, ‘স্যাটারডে আফটারনুন’ হচ্ছে পরিচালক ফারুকীর ‘আইডেন্টিটি’ ট্রিলজির প্রথম সিনেমা। অর্থাৎ এই সিরিজে তিনটি চলচ্চিত্র নির্মাণ করবেন পরিচালক। ‘আইডেন্টিটি’ ট্রিলজি নিয়ে পরিচালক মোস্তফা সরওয়ার ফারুকী বলেন, “মানুষের জন্ম পরিচয় বর্তমান বিশ্বে এক বড় ধাঁধার নাম। এটা যেন একটা ভাগ্য নির্ধারক হয়ে দাঁড়িয়েছে। বর্তমান বিশ্বে আপনি কেমন দেখতে, কোন ধর্মের, চামড়ার রঙ কি এটার উপরেই অনেক কিছু নির্ভর করে। আপনি সুবিধাভোগী হবেন নাকি শোষিত হবেন তা সব এগুলোই নির্ধারণ করে দেয়।”

আইডেন্টিটি ট্রিলজির দ্বিতীয় চলচ্চিত্রের নাম ‘নো ম্যান’স ল্যান্ড’ এবং তৃতীয় চলচ্চিত্রটি নির্মিত হবে বাংলাদেশের রোহিঙ্গা সমস্যার উপর কেন্দ্র করে যার নাম এখনো প্রকাশ করা হয়নি।

তথ্যসূত্র : ভ্যারাইটি