১লা জুন হতে ৫ম চিটাগং শর্ট ফিল্ম ফেস্টিভ্যাল ২০২০-এর চলচ্চিত্র জমাদান শুরু, চলবে ৩০ সেপ্টেম্বর ২০১৯ পর্যন্ত

৫ম চিটাগং শর্ট ফিল্ম ফেস্টিভ্যাল ২০২০-এ অংশগ্রহণের জন্য চলচ্চিত্র জমাদান প্রক্রিয়া শুরু হবে আগামী ১লা জুন ২০১৯ থেকে এবং চলবে ৩০ সেপ্টেম্বর ২০১৯ পর্যন্ত। ১ থেকে ৩০ জুন আর্লি বার্ড, ১ জুলাই থেকে ১৫ সেপ্টেম্বর রেগুলার ও ১৬ থেকে ৩০ সেপ্টেম্বর এক্সটেন্ডেড এ তিনটি ভিন্ন ভিন্ন ধাপে চলচ্চিত্র জমাদান প্রক্রিয়া চলবে সর্বমোট চার মাস। ২০১৮ সালের পরে উন্মুক্ত বিষয়ে নির্মিত অনুর্ধ ত্রিশ মিনিটের স্বল্পদৈর্ঘ্য চলচ্চিত্র এ উৎসবে জমাদানের সুযোগ রয়েছে। ১লা অক্টোবর থেকে চলচ্চিত্র বিশেষজ্ঞ ও চলচ্চিত্রকারদের দ্বারা গঠিত নির্বাচন কমিটি পুরোদমে নির্বাচনকার্য সম্পাদন করার পর ৩১ অক্টোবর ২০১৯ প্রদর্শনীর জন্য নির্বাচিত স্বল্পদৈর্ঘ্য চলচ্চিত্রের পূর্ণাঙ্গ তালিকা প্রকাশ করা হবে। উৎসবের পরিচালক ও সিনেমাটোগ্রাফার-নির্মাতা শারাফাত আলী শওকত বলেন, অফিশিয়াল সিলেকশন নির্ধারণের ক্ষেত্রে চিটাগং শর্ট সবসময় পরিচালকের দৃষ্টিকোণ থেকে বিচার করে। প্রোডাকশনের মূল্যমান, পরিচালকের এস্টিমেটেড গোল এবং তার এক্সিকিউশন, বাজেট, পারফরম্যান্স এ সব দিক বিবেচনা করেই একটা চলচ্চিত্রকে মূল্যায়ন করা হয়।

তরুণ চলচ্চিত্র নির্মাতা খুঁজে বের করে তাদের বৈশ্বিক চলচ্চিত্র অঙ্গনে সমান্তরালে কাজ করার সক্ষমতা অর্জনে উৎসাহ ও যথাযথ সহযোগিতা প্রদানের লক্ষ্যে ২০১৫ সালের ২৫ মে বিজ্ঞাপনী ও প্রযোজনা সংস্থা নকশা’র সিএসআর হিসেবে এবং স্বাধীন বাংলাদেশের প্রথম সংবাদপত্র দৈনিক আজাদীর প্রত্যক্ষ সহযোগিতায় প্রতিষ্ঠিত চলচ্চিত্র নির্মাতাদের সংগঠন ‘চিটাগং শর্ট’ প্রতিবছর এ স্বল্পদৈর্ঘ্য চলচ্চিত্র উৎসব আয়োজন করছে। কারণ, এ সংগঠন জানে কোন কলকারখানায় নির্মাতা তৈরি করা যায় না, বরং উৎসবই পারে ভালোমানের চলচ্চিত্র নির্মাতা গড়ে তুলতে— বলে মনে করেন চিটাগং শর্টের প্রতিষ্ঠাতা ও সভাপতি ইসমাইল চৌধুরী।

Call-for-Submission_Poster_২০২০ সালের জানুয়ারী-ফেব্রুয়ারিতে অনুষ্ঠিতব্য চিটাগং শর্ট ফিল্ম ফেস্টিভ্যালের ৫ম সংস্করণে শ্রেষ্ঠ চলচ্চিত্র, শ্রেষ্ঠ বিদেশী ভাষার চলচ্চিত্র, শ্রেষ্ঠ নির্মাতা, শ্রেষ্ঠ অভিনেতা, শ্রেষ্ঠ অভিনেত্রী, শ্রেষ্ঠ চিত্রগ্রাহক এবং দর্শক বিচারে শ্রেষ্ঠ চলচ্চিত্র মোট এই সাতটি ক্যাটেগরিতে নির্বাচিত চলচ্চিত্র পুরস্কার প্রদান করা হবে। আন্তর্জাতিক এ উৎসবে পুরস্কারের মোট মূল্যমান নগদ একহাজার মার্কিন ডলার, সম্মাননাপত্র ও ক্রেস্ট। তাছাড়া চিটাগং শর্ট প্রদর্শনীর জন্য নির্বাচিত দেশ-বিদেশ থেকে আগত চলচ্চিত্র নির্মাতাদের উৎসবে অংশগ্রহণকালীন আবাসন ও আপ্যায়ন সুবিধা প্রদান করা হয় বলে জানান উৎসবের ইভেন্ট ডিরেক্টর ও চলচ্চিত্র সম্পাদক অচ্যুত কুমার মিত্র যীশু।

উল্লেখ্য, গণপ্রজাতন্ত্রী বাংলাদেশ সরকারের তথ্য মন্ত্রণালয়, সংস্কৃতি বিষয়ক মন্ত্রণালয়, বাংলাদেশ জাতীয় জাদুঘর, বারকোড ক্যাফে গ্রুপ, ডেভেলপার প্রতিষ্ঠান সিপিডিএল, সানশাইন এডুকেশন গ্রুপ, সামিট অ্যালায়েন্স পোর্ট লিমিটেড, হ্যামার স্ট্রেন্থ ফিটনেস সেন্টার এবং সিনে ম্যাগাজিন আই চিটাগং শর্ট ফিল্ম ফেস্টিভ্যালের যৌথ আয়োজক ও পার্টনার হিসেবে সহযোগিতা প্রদান করে আসছে।

উৎসবে চলচ্চিত্র জমাদানের নিয়মাবলী, সাবমিশন ফি, পুরস্কার ও জমাদান প্রক্রিয়ার বিস্তারিত http://csffbd.nokshaworld.com এ ওয়েব ঠিকানায় পাওয়া যাবে।