১৭ জানুয়ারী ২০২০ নাহিদ মাসুদ চিটাগং শর্ট ফিল্ম ফেস্টিভ্যালে শব্দ নির্দেশনা বিষয়ক কর্মশালা পরিচালনা করবেন

প্রখ্যাত শব্দ গ্রাহক ও নির্দেশক নাহিদ মাসুদ ৫ম চিটাগং শর্ট ফিল্ম ফেস্টিভ্যাল এর প্রথম দিবসে চলচ্চিত্রে শব্দ প্রক্ষেপণ, শব্দগ্রহণ বিষয়ে কর্মশালা পরিচালনা করবেন। আগ্রহী চলচ্চিত্রকারদের জন্য এ আয়োজনে অংশগ্রহণ পুরোপুরি ফ্রি।

সাউন্ড রেকডিস্ট ও সাউন্ড এডিটর নাহিদ মাসুদ

এ প্রসঙ্গে ফেস্টিভ্যাল ডিরেক্টর শারাফাত আলী শওকত বলেন, যথাযথমানের চলচ্চিত্র নির্মাণের জন্য শব্দ প্রক্ষেপণ ও শব্দগ্রহণ তথা শব্দ নির্দেশনা বিষয়ে সম্যক জ্ঞান থাকা জরুরি। ‘মানবতার জন্য চলচ্চিত্র’-এ মূলমন্ত্রে উজ্জীবিত সিনে সংগঠন চিটাগং শর্ট নির্মাতাদের বিশেষতঃ চট্টগ্রামের তরুণ চলচ্চিত্র নির্মাতাদের এ বিষয়ে সবসময়ই সহযোগিতা করে আসছে। চিটাগং শর্টের ৫ম স্বল্পদৈর্ঘ্য চলচ্চিত্র উৎসব আয়োজনে প্রতিবারের মতো এবারও চলচ্চিত্র নির্মাণ কর্মশালার প্রস্তুতি নেয়া হয়েছে। তিনি আরও বলেন, নির্মাতাদের সুবিধার্থে কর্মশালায় অংশগ্রহণ পুরোপুরি ফ্রি। শুধুমাত্র নিজের নাম, প্রতিষ্ঠানের নাম এবং ইমেইল ঠিকানা লিখে তা ০১৬১৯৩৯৭৯৯৪ নম্বরে এসএমএস করেই সীমিত সংখ্যক আসনের এ কর্মশালায় যেকোনো আগ্রহী অংশগ্রহণ নিশ্চিত করতে পারেন।

১৭ ও ১৮ জানুয়ারি ৫ম চিটাগং শর্ট ফিল্ম ফেস্টিভ্যাল ২০২০

উল্লেখ্য, তরুণ চলচ্চিত্রকার এবং চলচ্চিত্র নির্মাণে আগ্রহীদের আত্মপ্রতিষ্ঠা ও আত্ম-অবস্থান তৈরী করতেই জন্ম চিটাগং শর্ট-এর। তরুণদের প্রেরণার অংশ হিসেবে ২০১৬ সাল থেকে চলচ্চিত্র উৎসব আয়োজন করে আসছে চিটাগং শর্ট। চলচ্চিত্র প্রতিযোগিতা ও প্রদর্শনী, মাস্টারক্লাস, কর্মশালা, সেমিনারসহ আরো নানা আয়োজনে সাজানো থাকে চিটাগং শর্ট চলচ্চিত্র উৎসব।

উল্লেখ্য, ৪র্থ চিটাগং শর্ট ফিল্ম ফেস্টিভ্যাল ২০১৯ হতে এডুকেশন পার্টনার হিসেবে দ্য সানশাইন এডুকেশন গ্রুপ, অর্গানাইজিং পার্টনার হিসেবে সামিট অ্যালায়েন্স পোর্ট লিমিটেড ও সিপিডিএল, হসপিটালিটি পার্টনার হিসেবে বারকোড ও আমরা চট্টগ্রাম এবং মিডিয়া পার্টনার হিসেবে সিনে ম্যাগাজিন আই একযোগে কাজ করে যাচ্ছে।

আয়োজক কমিটির প্রধান পৃষ্ঠপোষক হিসেবে দৈনিক আজাদী’র পরিচালনা সম্পাদক ওয়াহিদ মালেক, সভাপতি হিসেবে নকশা’র কর্ণধার লায়ন ইসমাইল চৌধুরী, উৎসব পরিচালক হিসেবে প্রখ্যাত চিত্রগ্রাহক ও সংগঠক শারাফাত আলী শওকত, অনুষ্ঠান পরিচালক হিসেবে চিলড্রেন্স আই ফেয়ার ফিল্ম সোসাইটির সচিব অচ্যুত কুমার মিত্রসহ প্রতিভাবান একঝাঁক তরুণ নির্মাতাগণ নিরলসভাবে কাজ করছেন।